জাজ মাল্টিমিডিয়া যখন জাজ মাল্টিমিডিয়া ইন্ডিয়া লিমিটেড

জাজ মাল্টিমিডিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশে ডিজিটাল চলচ্চিত্র নির্মাণের জোয়ার শুরু হয়। শুধু তাই নয়, এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটিই প্রথম দেশের ১০০টি প্রেক্ষাগৃহ ডিজিটাইজড করে। ২০১২ সাল থেকে প্রতিবছর গড়ে ছয়-সাতটি ছবি প্রযোজনা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। বাপ্পী চৌধুরী, মাহিয়া মাহি, নুসরাত ফারিয়া, রোশান, জলি, পূজা, সিয়ামের মতো নতুন মুখের আগমন তাদের হাত ধরেই।

ভারতের এসকে মুভিজ, ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় নির্মাণ করেছে বেশ কয়েকটি ব্যবসাসফল ছবি। সেই ‘জাজ মাল্টিমিডিয়া’ই বাংলাদেশে ছবি নির্মাণ বন্ধ করার ঘোষণা দিল! ঢালিউডের বদলে টালিগঞ্জে ব্যবসা করবে তারা। এরই মধ্যে বালিগঞ্জে নতুন অফিস নেওয়া হয়েছে। ভারতে প্রতিষ্ঠানটির নাম ‘জাজ মাল্টিমিডিয়া ইন্ডিয়া লিমিটেড’। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার আব্দুল আজিজ বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে বছরে অন্তত ১০টি ছবি নির্মাণ করব আমরা।’ বাংলাদেশ ছেড়ে ভারতে কেন?

 

Loading...

অভিমানী কণ্ঠে আজিজ বলেন, ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্রকে ভালোবাসি। আর সে জন্যই আর্থিক ক্ষতি স্বীকার করেও একের পর এক ছবি নির্মাণ করেছি। এখন দেশি ছবির তুলনায় যৌথ প্রযোজনার ছবি বেশি ব্যবসা করছে। তা ছাড়া দুই দেশের অর্থলগ্নির কারণে ছবির বাজেট বেশি হয়, মানও ভালো হয়। দর্শকও পছন্দ করে। অথচ সরকার যৌথ প্রযোজনার যে নীতিমালা তৈরি করেছে সেটা মানলে কোনোভাবেই যৌথ প্রযোজনায় ছবি নির্মাণ সম্ভব নয়। আমরা সরকারের কাছে একটি খসড়া নীতিমালা দিয়েছিলাম।

সেটা আমলে নেওয়া হয়নি। তার মানে দাঁড়ায়, এ দেশের চলচ্চিত্রে জাজের অবদান নেই বা তাদের দরকারও নেই। সেই কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ জাজ প্রযোজিত পশ্চিমবঙ্গের ছবিগুলো বাংলাদেশে সাফটা চুক্তিতে মুক্তি পাবে কি না জানতে চাইলে আজিজ বলেন, ‘সেখানকার বাজার চিন্তা করেই ছবি বানাব। বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে কি না তা নিয়ে মাথাব্যথা নেই।’

টালিগঞ্জের চলচ্চিত্র ব্যবসায় সাম্প্রতিক ধস নিয়েও ভাবছেন না আজিজ। তিনি মনে করেন, সেখানকার স্যাটেলাইট রাইটস দিয়েই ছবির অর্ধেক লগ্নি তুলে আনা সম্ভব।

সেখানকার ছবিগুলোতে বাংলাদেশি শিল্পীদের সুযোগ দেবেন? ‘আপাতত সেখানকার শিল্পীদের নিয়েই ভাবছি। ধীরে ধীরে হয়তো বাংলাদেশিরা সুযোগ পেতে পারেন।’

সব কিছু পরিকল্পনামাফিক এগোলে এ বছর থেকেই ‘জাজ মাল্টিমিডিয়া ইন্ডিয়া লিমিটেড’ পশ্চিমবঙ্গের দর্শকদের ছবি উপহার দেবে। সুত্রঃ কালেরকন্ঠ

About চীপ ইডিটর

View all posts by চীপ ইডিটর →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.