বিশ্বকাপে ফুটবলারদের যৌনতায় লাগাম!

বিশ্বকাপে প্লেয়ারদের সঙ্গে হোটেল রুমে জায়গা পান ফুটবলারদের স্ত্রী ও গার্লফ্রেন্ড৷ এমনকি মাঠে ভালো পারফরম্যান্সের জন্য যৌনতা উপভোগের কথা বলে থাকেন প্রাক্তন ফুটবল খেলোয়াড়রা৷ ফুটবল বিশ্বকাপের আসরে ফুটবলারদের উদ্দাম যৌনতার কথা সর্বজনবিদিত৷ ফুটবল বিশ্বকাপ এবং অবাধ যৌনতা যেন কিছুটা সমার্থক৷ কিন্তু এই পথ থেকে সরে এসে বিশ্বকাপ চলাকালীন ফুটবলারদের যৌনতা উপভোগ করায় ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারী করলেন জার্মান কোচ জোয়াকিম লো৷

তবে শুধুমাত্র খেলোয়াড়দের যৌনতা উপভোগের উপরই বিধি নিষেধ আরোপ করেই ক্ষান্ত হননি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের কোচ৷ বিশ্বকাপের প্রস্তুতিপর্বে পরিবারের সঙ্গে দেখা করাতেও নতুন নিয়ম এনেছেন তিনি৷ প্রস্তুতি চলাকালীন পরিবারের সঙ্গে দেখা করার জন্যও ফুটবলারদের নিতে হবে কোচের অনুমতি৷ আর টুর্নামেন্ট শুরু হয়ে গেলে কোনওভাবেই দেখা করা যাবে না পরিবারের সঙ্গে৷

পাশাপাশি ওজিল, সেন এবং মুলারদের মত প্লেয়ারদের সোশ্যাল মিডিয়াতেও সক্রিয় থাকা যাবে না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন গতবারের চ্যাম্পিয়ন কোচ৷ বোঝাই যাচ্ছে মাঠে ফুটবলারেদের মনসংযোগ নিয়ে অতিমাত্রায় চিন্তিত বিশ্বকাপ জয়ী জার্মান কোচ৷

কিছুদিন আগেই ফুটবলারদের সঙ্গম করে গোলে থাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন ব্রাজিলের কিংবদন্তি রোমারিও৷ ব্রাজিলের উঠতি ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল জেসুসের উদ্দেশ্যে বিশ্বকাপ জয়ী তারকা রোমারিও পরামর্শ ছিল ‘যৌনতা উপভোগ কর এবং গোল করতে থাকো৷’

Loading...

শুধু রোমারিও নন অনেকেই বড় ফুটবল ব্যক্তিত্বরা মনে করেন হোটেল রুমের উপভোগ্য যৌনতা মাঠে খেলোয়াড়দের ভালো পারফর্ম করতে সাহায্য করে৷ কিন্তু তাদের সঙ্গে সহমত না-হয়েই জার্মানির ফুটবলাদের অবাধ যৌনতায় লাগাম টানলেন লো৷ এমনকি বিছানায় যাওয়ার আগে ফুটবলারদের বিয়ার ও ওয়াইন পানের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করেছেন জার্মান কোচ৷

About চীপ ইডিটর

View all posts by চীপ ইডিটর →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.